ঢাকাশনিবার - ৬ নভেম্বর ২০২১
  1. করোনাভাইরাস
  2. খেলা
  3. চাকরি
  4. দুর্ঘটনা
  5. ধর্ম
  6. বাণিজ্য
  7. বাংলাদেশ
  8. বিনোদন
  9. বিশেষ সংবাদ
  10. বিশ্ব
  11. মতামত
  12. রাজনীতি
  13. লাইফস্টাইল
  14. সর্বশেষ
আজকের সর্বশেষ সবখবর

মন্ত্রী “পরিহহন মালিকদের” ভারা বেশি না রাখার জন্য সতর্ক করে দেন

somadanbd
নভেম্বর ৬, ২০২১ ১২:০৫ অপরাহ্ণ
Link Copied!

মন্ত্রী “পরিহহন মালিকদের” ভারা বেশি না রাখার জন্য সতর্ক করে দেন।

বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নজরুল হামিদ বলেন, ভারতসহ সারাবিশ্বে জ্বালানির দাম বাড়ানো হয়েছে। আর তাই তাদের সাথে সমন্বয় করার জন্য বাংলাদেশ ও জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানো হয়েছে। তিনি আরো বলেন বিভিন্ন দেশে যেভাবে জ্বালানির দাম বাড়ানো হয়েছে সে দাম বাড়ানো ঠেকাতেই বাংলাদেশের এই উদ্যোগ নিয়েছে।

বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেন আমরা জ্বালানি তেল দাম অন্য দেশের সাথে সমন্বয় এর জন্য বাড়িয়েছি। ৬ নভেম্বর শনিবার সাংবাদিকদের সাথে এ কথা বলেন তিনি। নসরুল হামিদ বলেন বাংলাদেশ যে পরিমাণে জ্বালানি তেলের খরচ বানানো হয়েছে প্রতি ১০ কিলোমিটার আগের থেকে মাত্র ৯৩ পয়সা বেশি ভাড়া বেড়েছে। কিন্তু অন্য দিকে খেয়াল করলে দেখা যায় যে সকল যাত্রীরা বলছে এখন ১০ টাকার ভাড়া ১০০ টাকা হয়ে গিয়েছে। যে জায়গায় আগে ১০ টাকা দিয়ে যাওয়া যেত সেখানে যেতে এখন বাস ড্রাইভার ৯০ টাকা বা ১০০ টাকা চাচ্ছে। এভাবে যদি জ্বালানির দাম বাড়ে তাহলে জনগণ চলাফেরা করবে কিভাবে? জ্বালানী প্রতিমন্ত্রী বলেন মাত্র ৯৩ পয়সা বাড়ানো হয়েছে প্রতি ১০ কিলোমিটারের, তাহলে বাসায় বারা কেন ১০ টাকার ভাড়া ১০০ টাকা চাচ্ছে?

 

আরো পড়ুনঃ- ১০ টাকার ভাড়া ১০০ টাকা

 

৬ নভেম্বর ডিজেলের দাম বাড়ানোর পরে পরিবহন মালিকদের যখন রাস্তায় ধর্মঘট শুরু করে তারপর সড়ক পরিবহনমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ডিজেলের দাম বাড়ার কারণে পরিবহন মালিক বা ড্রাইভাররা ভাড়া বেশি চাচ্ছে। এবং তিনি আরও বলেন যে, জনগণের যেন কষ্ট বা কোনো ক্ষতি না হয় সেজন্য তিনি এ সকল পরিবহনের ভাড়া সহনীয় পর্যায়ে রাখাবে। শিক্ষার্থীদের স্কুলে যেতে হয় কলেজে যেতে হয় আর যদি এত ভাড়া হয়ে থাকে একটি ভাড়া যদি দশ গুণ বাড়ানো হয় তাহলে তারা কিভাবে স্কুলে যাবে বাংলাদেশ যাবে? আরে কথা চিন্তা করেই সড়ক পরিবহনমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের পরিবহনের ভাড়া সবার হাতের নাগালে রাখবে বলে জানিয়েছেন।

শিক্ষার্থী, চাকরিজীবী , ব্যবসায়ী সবার কথা বিবেচনা করে সেতু মন্ত্রী জানিয়েছেন এখন যেন ধর্মঘট বন্ধ রাখা হয়। তা না হলে সবার অনেক বিপদের মুখে পড়তে হবে। আরে কথা শুনে বেশিরভাগ পরিবহন মালিক তার সাথে একমত হয় এবং ধর্মঘট থামিয়ে দেয়। ওবায়দুল কাদের আরো বলেন যে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছেন।

বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী এবং সেতুমন্ত্রী এবং সড়ক পরিবহন মন্ত্রী সবাই একসাথে সতর্ক করে দেন যেন, ডিজেল বা জ্বালানির অজুহাত দেখিয়ে অন্যায় ভাবে পরিবহনের ভাড়া বা দ্রব্যমূল্যের মূল্য বৃদ্ধির না করে। এবং এ বিষয়ে তাদেরকে সতর্ক থাকতে বলে। যদি এসব কোনো কারণে দ্রব্যমূল্যের মূল্য অথবা ঘরের ভাড়া বাড়িয়ে দেয়া হয় তাহলে সবাইকে আইনের আওতায় আনা হবে একথা বলে সরকারের সংশ্লিষ্ট সংস্থাসহ সবাইকে সতর্ক করে দেয়।

ধন্যবাদ আমাদের সাথে থাকার জন্য।এরকম আরোও খবরের জন্য আমাদের ফলো করতে পারেন ফেসবুকে

আমাদের সাথে সরাসরি যোগাযোগ করতে পারেন আমাদের ফেসবুক পেজে। আমাদের ফেসবুক পেজঃ- সমাধান বিডি ডট কম।

ফেসবুকঃ- somadanbd.com

 

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।